Home / BCS TIPS / ৩৫তম বিসিএসের নন–ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য আবেদনপত্র আহ্বান

৩৫তম বিসিএসের নন–ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য আবেদনপত্র আহ্বান

৩৫তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কিন্তু পদ–স্বল্পতার জন্য ক্যাডার পদে সুপারিশ করা যায়নি, এমন প্রার্থীদের নন–ক্যাডার পদে নিয়োগের জন্য আবেদনপত্র আহ্বান করেছে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)। আজ বুধবার এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এবারই প্রথম অনলাইনে আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়েছে।

পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আ ই ম নেছারউদ্দিন জানিয়েছেন, ২০ নভেম্বর থেকে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করা যাবে। এ জন্য টেলিটক থেকে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীদের মোবাইলে এসএমএস যাবে। ৮ ডিসেম্বর বিকেল পাঁচটার মধ্যে অনলাইনে যাঁরা আবেদন করতে পারবেন না, তাঁদের প্রার্থিতা বাতিল বলে গণ্য হবে।

গত ১৭ আগস্ট ৩৫তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফলে ৫ হাজার ৫৩৩ জন উত্তীর্ণ হন। এর মধ্যে ২ হাজার ১৫৮ জনকে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ করা হয় এবং পদ-স্বল্পতার কারণে সুপারিশ করা যায়নি, এমন ৩ হাজার ৩৫৯ জনকে নন–ক্যাডারের জন্য রাখা হয়।

২০১০ সাল থেকে বিসিএসের মাধ্যমে নন-ক্যাডার পদে নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ জন্য ওই বছরের ১০ মে নন-ক্যাডার বিধিমালা, ২০১০ জারি করা হয়। এতে বলা হয়েছে, শূন্য পদের ৫০ শতাংশ বিসিএসে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হবে। ২০১৪ সালে এই বিধি সংশোধন করে প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার পদের পাশাপাশি দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা পদেও নিয়োগের ব্যবস্থা রাখা হয়। তবে পরবর্তী বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত আগের বিসিএস থেকে নন-ক্যাডারে নিয়োগ চলে। তাই ৩৬তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত হলে ৩৫তম বিসিএসে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা আর নিয়োগ পাবেন না।

আজকের প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষাগত যোগ্যতা, বিদ্যমান সব কোটা এবং সরকারের কাছ থেকে পাওয়া শূন্য পদের ভিত্তিতে নন ক্যাডারে নিয়োগ করা হবে। অনলাইনে আবেদনের সময় প্রার্থী প্রথম শ্রেণির, দ্বিতীয় শ্রেণির নাকি দুটিতেই আবেদন করতে চায়, সেটি উল্লেখ করতে হবে।

Check Also

বিসিএস পরীক্ষা–পদ্ধতি সংস্কার–ভাবনা

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস) পরীক্ষায় বড় ধরনের সংস্কারের একটি প্রস্তাবের প্রক্রিয়া করা হচ্ছে। আর স্বাভাবিকভাবেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.